অাপসহীন সত্যান্বেষী
  • শিরোনাম

    বুড়িচং উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী শতভাগ বিজয়ী হওয়ার আশাবাদী

    সাইফুল ইসলাম শিশির,কুমিল্লাঃ | শনিবার, ২৩ মার্চ ২০১৯

    বুড়িচং উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী শতভাগ বিজয়ী হওয়ার আশাবাদী

    বুড়িচং উপজেলা পরিষদের নির্বাচন নিয়ে বিভিন্ন সময় সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয় দু’জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর। আ’লীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকে উপজেলা আ’লীগের আহবায়ক এড.আবুল হাশেম খাঁনের প্রতিদ্বন্দ্বী আ’লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত আনারস প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা যুগ্ম আহবায়ক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আখলাক হায়দার। তাঁরা দু’জনই জয়ের বিষয়ে শতভাগ আশাবাদী এবং বিজয়ীই হওয়ার পর উপজেলাকে আধুনিক, উন্নত ও ডিজিটাল উপজেলা হিসেবে গড়ে তোলার কথা বলেছেন। ৬দিন পর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোটের দিন। উপজেলাজুড়ে ভোটের লড়াই জমে উঠেছে। প্রতিশ্রুতি আর গণসংযোগের প্রতিযোগিতা চলছে প্রার্থীদের মাঝে। উপজেলা আ’লীগের নেতাকর্মীদের আলোচনা সমালোচনা, মামলা হামলা ও প্রচার প্রচারণায় জমে উঠেছে নির্বাচনী আমেজ। বিএনপি না থাকলেও এখানে আ’লীগের বিরোধী আ’লীগ। উপজেলা আ’লীগের প্রভাবশালী দুই নেতার প্রার্থীতার কারনে দলের নেতাকর্মীরা এখন অনেকটাই দুই ভাগে বিভক্ত বলা যায়। ইতিমধ্যে দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মাঝে কয়েকবার হামলা, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনাও ঘটেছে। সংঘর্ষের এসব ঘটনায় থানায় মামলাও হয়েছে। রাজনীতির সাথে জড়িত ছোট বড় নেতাকর্মী ও সমর্থকদের মাঝে এ নির্বাচন নিয়ে রয়েছে ব্যাপক আগ্রহ। আ’লীগ বনাম নৌকা কিংবা আ’লীগ বনাম আনারসের এ লড়াইয়ে কে হচ্ছেন বুড়িচং উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান? আর এটি জানার জন্য অপেক্ষা করতে হবে ৩১শে মার্চ সন্ধ্যায় পর্যন্ত।

    জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, শতভাগ নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠ ভাবে ভোট গ্রহণ সহ ভোটারদের শান্তিপূর্ণ ভোট দান নিশ্চিত করতে যা যা করা প্রয়োজন সকল ব্যাবস্থা গ্রহনের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। কোন প্রকার বিশৃঙ্খলা বা কারচুপি করার কোন সুযোগ নেই। ভোটের শান্তি বিঘœত বা বিশৃঙ্খলার কোনরুপ চেষ্টা করলে সে যেই হোক না কেন কঠোর ব্যাবস্থা গ্রহণের নির্দেশনা রয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রেই থাকবে নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যাবস্থা । সুষ্ঠ ভোটে প্রার্থীদের সকলেই নিজেদের জয়ের ব্যাপারে সমান ভাবে আশাবাদী।

    নৌকা প্রতীকে এড.আবুল হাশেম খাঁন বুড়িচং উপজেলা আ’লীগের প্রবীণ রাজনীতিবিদ ও কুমিল্লা বারের সাবেক সভাপতি এবং উপজেলা দীর্ঘ ৫০ বছর যাবৎ আ’লীগের নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে রাজনীতি করে তার সাথে অনেক নেতাকর্মীরা সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও কুমিল্লা জেলা দঃ আ’লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক সাজ্জাদ হোসেন স্বপন ও সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান এডভোকেট রেজাউল করিমসহ নেতাকর্মী ও সমর্থকরা তার নির্বাচনে গণসংযোগে ব্যাস্ত সময় পাড় করছেন। প্রতিদিনই ছুটছেন উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে।

    অপরদিকে দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত আনারস প্রতিকে আখলাক হায়দার উপজেলার আ’লীগের প্রবীণ রাজনীতিবিদ ও ময়নামতি ইউপির দু’বারের নির্বাচিত সাবেক চেয়ারম্যান। এছাড়াও আখলাক হায়দারের ছোট দু’ভাইয়ের একজন কুমিল্লা জেলা পরিষদের সদস্য হাজী মো.তারেক হায়দার এবং ময়নামতি ইউনিয়নের দু’বারের নির্বাচিত বর্তমান চেয়ারম্যান লালন হায়দার। উপজেলা আ’লীগের রাজনীতিতে তাদেরও প্রভাব এবং জনপ্রীয়তা বিশাল একটি অংশসহ ৫টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আ’লীগের প্রার্থীর বিরোধীদের জোড়ালো সমর্থন তিনিই পাচ্ছেন। আ’লীগের তৃণমূলের বড় একটি অংশ আনারস প্রতীকের প্রার্থীর জন্য দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকদের নিয়ে চষে বেড়াচ্ছের উপজেলার ৯টি ইউনিয়ের ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। নির্বাচনী সভা, সমাবেশ, মিছিল ও মিটিংয়ে রাতদিন পার করছেন ব্যাস্ততায়।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

  • ফেসবুকে onusondhanbd24.com